মুশফিকের ব্যাটিং নৈপুণ্যে বাংলাদেশের সংগ্রহ ২৬১

latest news খেলাধুলা

 অনলাইন ডেস্ক : এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ২৬২ রানের টার্গেট দিয়েছে বাংলাদেশ। দলের এই ফাইটিং স্কোরে দারুণ অবদান রাখেন মুশফিকুর রহিম। মুশফিকের ব্যাট থেকে আসে ১৪৪ রান। তামিম ইকবাল ২ রানে অপরাজিত থাকেন। বাংলাদেশ আজ ৪৯.৩ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে করে ২৬১ রান সংগ্রহ করে।  আজ বাংলাদেশের ইনিংসে ওপেনার তামিম ইকবালের সঙ্গী হন লিটন দাস। প্রায় ১৬ মাস পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরা পেসার লাসিথ মালিঙ্গা ইনিংসের প্রথম ওভারেই লিটনকে ফিরিয়ে দেন। পঞ্চম বলে স্লিপে মেন্ডিসের হাতে বল জমা পড়ার আগে লিটনের ব্যাট থেকে কোনো রানই আসেনি। প্রথম ওভারের শেষ বলে সাকিবকে বোল্ড করেন মালিঙ্গা। দলীয় ১ রানের মাথায় বাংলাদেশ ২ উইকেট হারায়। লিটন দাস আর সাকিব আল হাসানকে হারিয়ে ব্যাট করতে থাকে বাংলাদেশ। সুরাঙ্গা লাকমলের করা দ্বিতীয় ওভারের শেষ বলে হাতের পুরোনো ইনজুরিতে আঘাত পান তামিম ইকবাল। পরে তিনি উইকেট ছেড়ে উঠে যান।

তামিমের জায়গায় ব্যাটিংয়ে আসেন মোহাম্মদ মিঠুন। ইনিংসের পঞ্চম ওভারে মালিঙ্গার বলে ম্যাথিউজের হাতে ক্যাচ তুলে দেন মিঠুন। তবে, ভাগ্য ভালো হওয়ায় হাতের ক্যাচ মিস করেন ম্যাথিউজ। একই ওভারে আবারো মিঠুন ক্যাচ তুলে দিলেও কোমরের উপর বল থাকায় আম্পায়ার নো বলের ডাক দেন। তবে, সেবারও ক্যাচ মিস হয়। পরের বলে (ফ্রি-হিট) মুশফিক ক্যাচ তুলে দিলেও নো বলের কল্যানে বেঁচে যান। থিসারা পেরেরার করা দশম ওভারে ক্যাচ তুলে দেন মুশফিক। স্কয়ার লেগে সেটাও মিস করেন দিলরুয়ান পেরেরা। এরপর দলীয় ১৩৪ রানের মাথায় তৃতীয় উইকেট হারায় বাংলাদেশ। মালিঙ্গার বলে কুশল পেরেরার হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ৬৮ বলে ৫টি চার ও ২টি ছয়ে ৬৩ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলে সাজঘরে ফেরেন মোহাম্মদ মিঠুন। তার আগে মুশফিকের সঙ্গে ১৩১ রানের জুটি গড়েন তিনি। ২৭তম ওভারের আপোনসোর করা দ্বিতীয় বলে ডি সিলভার হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে মাঠ ছাড়েন মাহমুদউল্লাহ (১)।

২৮তম ওভারের শেষ বলে নিজের চতুর্থ উইকেটটি তুলে নেন মালিঙ্গা। উইকেটরক্ষক কুশল পেরেরার হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত (১)। এরপর ৩৪তম ওভারে (৩৪.৪) সুরাঙ্গা লাকমলের বলে তার হাতে ক্যাচ দিয়ে ব্যক্তিগত ১৫ রানে ফেরেন মেহেদি হাসান মিরাজ। এরপর মুশফিকের সঙ্গে ব্যাটিংয়ে নেমে দলের হাল ধরার চেষ্টা করলেও ব্যক্তিগত ১১ রানে সাজঘরে ফেরেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। ডি সিলভার বলে থারাঙ্গার হাতে ক্যাচ তুলে মাঠ ছাড়েন তিনি। এরপর ৪৩তম ওভারের চতুর্থ বলে ডি সিলভার বলে এলবি ডব্লিউ’র শিকার হয়ে আউট হন রুবেল হোসেন (২)। এরপর মুশফিকের সঙ্গে ২৬ রানের জুটি গড়ে ব্যক্তিগত ১০ রানে আউট হন মোস্তাফিজ। বাংলাদেশের ইনিংসটা শেষ হওয়ার কথা তখনই। তবে ঠিক সেই মুহূর্তে চমকটা দেখিয়েছেন তামিম ইকবাল। মুশফিককে সঙ্গ দিতে বাঁহাতে ইনজুরি নিয়েও ব্যাট হাতে মাঠে নেমে পড়েন বাংলাদেশ সেরা ওপেনার।

শেয়ার করুন