কাপাসিয়ায় পরিবেশ সংরক্ষণ ও কর্মস্থান বিষয়ক আলোচনা সভা

ঢাকা সারাদেশ

কাপাসিয়া (গাজীপুর) প্রতিনিধি
শ্যামল বাংলা কৃষি ফার্ম লিঃ এর আয়োজনে কাপাসিয়ায় পরিত্যক্ত ও অব্যবহত জৈব সম্পদ ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে পরিবেশ সংরক্ষণ ও কর্মস্থান বিষয়ক আলোচনা সভা হয়। ০৯ ফেব্রুয়ারী দুপুরে উপজেলা পরিষদ হল রুমে এ অনুষ্ঠান হয়েছে। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন বঙ্গতাজ কন্যা সিমিন হোসেন রিমি এমপি।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাঃ ইসমত আরা’র সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন তথ্য কমিশনার (সিনিয়র সচিব) সুরইয়া বেগম, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোঃ মাহ্ফুজুল কাদের, উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) নীলিমা রায়হানা, বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ আলী বদু, মিজানুর রহমান, রেজাউর রহমান লস্কর, আসাদুজ্জাম আসাদ, রওশন আরা সরকার, মাহবুব উদ্দিন সেলিম, চেয়ারম্যান সাখাওয়াত হোসেন, এম এ গাফ্ফার, আইবুর রহমান সিকদার, শাহিনুর আলম সেলিম প্রমুখ।
সিমিন হোসেন রিমি বলেন, সবুজ অর্থনৈতিক জোন গঠনের কাপাসিয়ায় অনন্য ভূমিকা পালন করবে। জৈব সার রাসায়নিক সারের চেয়ে অধিক কার্যকর। সারায়নিক সার মাটির গন্ধ ও উর্বরতা নষ্ট করে দেয়।
সুরাইয়া বেগম বলেন, ২০১৫ সালে কাপাসিয়ায় জৈব সার প্রয়োগ শুরু হয়। কৃষকরা এ সার ব্যবহারে অধিক ফসল উৎপাদন করতে সক্ষম হয়। শীতলক্ষা নদীকে ময়লা ও আবর্জনা থেকে বাঁচিয়ে রাখা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব।

মাহ্ফুজুল কাদের বলেন, রাসায়নিক সার ও কীটনাশক ব্যবহারের ফলে মাটির গুনাগুণ কমে মাটি শক্ত হয়ে যায়। শ্যামল বাংলা জৈব সার ব্যবহারের ফলে অধিক ফলন আশা করা যায় এবং খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধি পায়। জৈব সার ব্যবহার করলে জমিতে কোন কীটনাশক লাগে না।

শেয়ার করুন