নতুন ঠিকানায় মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর: রবিবার উদ্বোধন

latest news জাতীয়

ঢাকা, ১৫ এপ্রিল: অবশেষে কাঙ্ক্ষিত স্থায়ী অবকাঠামো পেতে যাচ্ছে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর। আগামীকাল রবিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজধানীর আগারগাঁওয়ে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের স্থায়ী ভবনের উদ্বোধন করবেন। পরদিন সোমবার থেকে জনসাধারণের জন্য খুলে দেয়া হবে নতুন ঠিকানার এই মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর।

নতুন ভবনে স্থানান্তরিত জাদুঘরের বিষয়ে এর ট্রাস্টি মুক্তিযোদ্ধা আক্কু চৌধুরী ফেসবুকে লিখেছেন, ‘মুক্তিযুদ্ধ ছিল জনযুদ্ধ, জনযুদ্ধ যেমন ছিল জনগণের জন্য, এই মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরও জনগণের জন্য’। তিনি আরও বলেন, ‘ইতিহাস আমরা লিখতে চাইনি। সত্য ইতিহাস আমরা মানুষের সামনে উপস্থাপন করতে চেয়েছি। আমরা সত্য ইতিহাস উপস্থাপন করে যাব। জয় মানুষ’।

দেশ-বিদেশে যারা এই মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর প্রতিষ্ঠা, কার্যক্রম পরিচালনা এবং নতুন ভবনে স্থানান্তরে অবদান রেখেছেন তাদের সকলকে ধন্যবাদ এবং তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন আক্কু চৌধুরী ।

১৯৯৬ সালের ২২ মার্চ রাজধানীর সেগুন বাগিচায় একটি ভাড়া করা দ্বিতল ভবনে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস অবিকৃত রাখার উদ্দেশ্যে স্থাপিত মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর। আর নতুন ঠিকানায় এই জাদুঘর পেতে যাচ্ছে একটি নয়তলা ভবন।

নতুন ভবনে স্থানান্তর উপলক্ষ্যে আজ শনিবার সকালে মুক্তিযুদ্ধের প্রতীকী মশাল নিয়ে একটি শোভাযাত্রা নিয়ে যাওয়া হয় আগারগাঁও ভবনে। মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তান, নাতি-নাতনি ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা লালন করে এমন নতুন প্রজন্মের শত শত ছেলে-মেয়ে শোভাযাত্রায় অংশ নেন। শোভাযাত্রায় মশাল বহন করেন হিমালয়ের উচ্চতম চূড়া, এভারেস্ট বিজয়ী নিশাত মজুমদার। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার পর থেকে শুরু হয় ভয়াবহ ইতিহাস বিকৃতি। পাঠ্যপুস্তক থেকে শুরু করে দৈনিক সংবাদপত্র সর্বত্রই মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃতি করে লেখালেখি শুরু হয়। বাঙালি জাতীয়তাবাদের চেতনায় স্বাধীন হওয়া রাষ্ট্র বাংলাদেশের নতুন প্রজন্মের সামনে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস ও দলিল উপস্থাপন করার লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠা করা হয় মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর।

১৯৯৬ সাল থেকে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের সঠিক ইতিহাস নতুন প্রজন্মের সামনে তুলে ধরতে ঐতিহাসিক ভূমিকা রাখছে। সীমিত পরিসরে যাত্রা শুরু করলেও অবিরাম তৎপরতা চালিয়ে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর হাজার হাজার ছবি, স্মারকসহ নানাবিধ দলিল হস্তগত করে জনসাধারণের জন্য প্রদর্শনের ব্যবস্থা করেছে।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর কর্তৃপক্ষ ২১ হাজার দলিল (ছবি ও অন্যান্য স্মারক দলিল) সংগ্রহ করে প্রদর্শনের ব্যবস্থা করেছেন।

শুধুমাত্র ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস নয়, মুক্তিযুদ্ধের পেছনে পাকিস্তান আমলের ২৪ বছর এবং তারও আগে ব্রিটিশ আমলের ঐতিহাসিক ঘটনাবলী এবং সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের ইতিহাস সংরক্ষিত আছে এই জাদুঘরে।

শেয়ার করুন

8 thoughts on “নতুন ঠিকানায় মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর: রবিবার উদ্বোধন

  1. This is the suitable blog for anybody who wants to search out out about this topic. You realize so much its virtually hard to argue with you (not that I truly would need…HaHa). You undoubtedly put a brand new spin on a subject thats been written about for years. Nice stuff, simply great!

  2. Oh my goodness! a tremendous article dude. Thank you However I’m experiencing problem with ur rss . Don’t know why Unable to subscribe to it. Is there anybody getting similar rss drawback? Anybody who is aware of kindly respond. Thnkx

  3. A formidable share, I simply given this onto a colleague who was doing just a little analysis on this. And he in reality bought me breakfast as a result of I discovered it for him.. smile. So let me reword that: Thnx for the treat! However yeah Thnkx for spending the time to debate this, I feel strongly about it and love studying extra on this topic. If possible, as you develop into expertise, would you mind updating your blog with more particulars? It’s extremely helpful for me. Large thumb up for this blog publish!

  4. Can I just say what a reduction to find someone who actually knows what theyre speaking about on the internet. You positively know learn how to carry a difficulty to light and make it important. Extra people must learn this and perceive this side of the story. I cant imagine youre not more common since you undoubtedly have the gift.

  5. This is the suitable blog for anybody who wants to search out out about this topic. You realize so much its virtually hard to argue with you (not that I truly would need…HaHa). You undoubtedly put a brand new spin on a subject thats been written about for years. Nice stuff, simply great!

  6. This is the suitable blog for anybody who wants to search out out about this topic. You realize so much its virtually hard to argue with you (not that I truly would need…HaHa). You undoubtedly put a brand new spin on a subject thats been written about for years. Nice stuff, simply great!

  7. A formidable share, I simply given this onto a colleague who was doing just a little analysis on this. And he in reality bought me breakfast as a result of I discovered it for him.. smile. So let me reword that: Thnx for the treat! However yeah Thnkx for spending the time to debate this, I feel strongly about it and love studying extra on this topic. If possible, as you develop into expertise, would you mind updating your blog with more particulars? It’s extremely helpful for me. Large thumb up for this blog publish!

Leave a Reply

Your email address will not be published.